মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সচরাচর জিজ্ঞাসা

নামজারি বা মিউটেশন হচ্ছে জমিসংক্রান্ত বিষয়ে মালিকানা পরিবর্তন করা। কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান কোন বৈধ পন্থায় ভূমি/জমির মালিকানা অর্জন করলে সরকারি রেকর্ড সংশোধন করে তার নামে রেকর্ড আপটুডেট (হালনাগাদ) করাকেই নামজারি বলা হয়। কোন ব্যক্তির নামজারি সম্পন্ন হলে তাকে একটি খতিয়ান দেয়া হয় যেখানে তার অর্জিত জমির একখানি সংক্ষিপ্ত হিসাব বিবরণী উল্লেখ থাকে। উক্ত হিসাব বিবরণী অর্থাৎ খতিয়ানে মালিকের নাম, কোন্ মৌজা, মৌজার নম্বর (জেএল নম্বর), জমির দাগ নম্বর, দাগে জমির পরিমাণ, একাধিক মালিক হলে তাদের নির্ধারিত হিস্যা ও প্রতি বছরের ধার্যকৃত খাজনা (ভূমি উন্নয়ন কর) ইত্যাদি লিপিবদ্ধ থাকে।

যৌথ মালিকানার জোত বা খতিয়ান ভেঙ্গে একক মালিকের নামে খতিয়ান খোলা বা একটি খতিয়ান থেকে অপরাপর মালিকদের নাম বাদ দেয়াকেই বলা হয় জমা-খারিজ। এছাড়া নামজারির সময় জোতের সাবেক মালিকের নাম কর্তন দেয়াকেও জমা-খারিজ বলে অর্থাৎ জমা হতে কারও নাম কর্তন করা বা বাদ দেয়া বা নাম খারিজ করে ফেলাই হলো জমা-খারিজ। জমা-খারিজের এই কাজটি হয়ে থাকে প্রজাস্বত্ব আইনের ১১৭ ধারা অনুসারে।

নামজারি ও জমা -খারিজ ছাড়াও জমা-একত্রীকরণ সম্পর্কে ধারণা থাকা প্রয়োজন,তাহলঃ কোন ব্যাক্তির একই মৌজার অন্তর্গত ভিন্ন ভিন্ন খতিয়ানের জমি খণ্ডগুলো একটি মাত্র খতিয়ানভুক্ত করে রেকর্ড সংশোধন হালকরণ করাকে বলে জমা-একত্রীকরণ। জমা-একত্রীকরণের এই কাজটি হয়ে থাকে প্রজাস্বত্ব আইনের ১১৬ ধারা অনুসারে।

ভূমি সেবায় সচরাচর জিজ্ঞাসার জন্য কল করুন - 01733373339

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter